দুদিনে পেঁয়াজের দাম খালাস বন্ধে বেড়েছে ৩০ টাকা

0
63

আমদানির অনুমতি থাকলেও এখনো পেঁয়াজের চালান আমাদের দেশে এসে এখনও পৌঁছায়নি। ঘূর্ণিঝড়ের কারণে আবার গত কয়েক দিন ধরে বন্দর থেকে কোন পেঁয়াজ খালাস করা ব্যাহত রয়েছে। তাই সরবরাহ কমে বাজারে দাম আরো বেড়ে গেছে ৩০ টাকা। কয়েক দিনেই প্রতি কেজিতে দাম খুচরায় প্রায় ৩০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে গেছে।

সমুদ্র বন্দর চট্টগ্রাম দিয়ে প্রায় ৬৬ হাজার টন মতো পেঁয়াজ আমদানির জন্য অনুমতি নিয়েছেন এদেশের ব্যবসায়ীরা। এখন ভারত থেকে রপ্তানি বন্ধের পর  আবার আজ সোমবার পর্যন্ত তারা এই অনুমতি নেন এদেশের ব্যবসায়ীরা। কিন্তু এর মধ্যে অন্তত পাঁচ হাজার টন পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে গেছে। আমদানির অপেক্ষায় আরো আছে প্রায় ৬১ হাজার টন।

সোমবার আজ থেকে চট্টগ্রামের খুচরা সব বাজারে মিয়ানমার ও অন্যত্র  থেকে আমদানি হওয়া সব পেঁয়াজ ১৩০ টাকা দরে প্রতি কেজিতে বিক্রি হচ্ছে এদেশে। ঘূর্ণিঝড়ের আগে যেখানে মিয়ানমারের এ পেঁয়াজের দাম নেমে এসেছিল খুচরায় প্রায় ১০০ টাকা। এদিকে অন্যদিকে যেমন মিসর ও চীন দেশ থেকে আমদানিতে হওয়া এসব পেঁয়াজ গুলো বিক্রি হচ্ছে মাত্র ১১০ টাকায়। পেঁয়াজ কেজিপ্রতিতে ৮৫ টাকায় যেখানে নেমে এসেছিল।

চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর সূত্র থেকে জানা গেছে যে, ঘূর্ণিঝড়ের এ প্রভাবে সম্ভাব্য সব ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে গত শনিবার সব জাহাজ এর জেটি থেকে এবং সাগরে পাঠিয়ে সেটা দেওয়া হয়। তাই গতকাল রোজ রোববার দুপুরের পর এসব জেটিতে জাহাজ গুলো ভেড়ানো শুরু হয়ে থাকে। তারপর আজ সোমবার সকাল থেকে এ পর্যন্ত ১০টি জাহাজ গুলো ভেড়ানো হয় বন্দর-এ। আর ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সর্ব মোট দুদিন এসব জাহাজ থেকে সব ধরনের পেঁয়াজ খালাস ও মালামাল খালাস ব্যাহত হয়।

চট্টগ্রাম বন্দর সচিব জনাব ওমর ফারুক প্রথম আলোকে আরো বলেন, অনেক ঝড়ের কারণে এসব কাজ সাময়িক ব্যাহত হলেও সব জাহাজ থেকে কনটেইনার গুলো খালাস পুরোদমে চলছে এবং সব গুলো খুব তারাতারি খালাস করা হবে। সব ধরনের পেঁয়াজবাহী কনটেইনার এর খালাসে সর্বোচ্চ পরিমান গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

এবার সবচেয়ে বেশি পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে মিসর দেশ থেকে।  মিসর দেশটি থেকে প্রায় ৫৮ হাজার টন পরিমান পেঁয়াজ আমদানির জন্য অনুমতি নিয়েছেন সকল ব্যবসায়ীরা। এ ছাড়া বন্দর গুলো দিয়ে মিয়ানমার, চীন, পাকিস্তান আরো তুরস্ক থেকেও বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে বাংলাদেশে।

Ad

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here