হাটহাজারীতে “প্রযুক্তির সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন” প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠান

0
819

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে “প্রযুক্তির সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন” প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত গত ১৯/০৭/২০১৯ তারিখ রোজ শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে “প্রযুক্তির সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন” প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হলো চট্রগ্রামের হাইড আউড রেস্টুরেন্টে।

“এ বিশ্বে যা কিছু সুন্দর চির কল্যাণকর, অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর।” কবির বলে যাওয়া এ বানী মিথ্যে নয়। একটি দেশ শুধুমাত্র পুরুষের উত্তরোত্তর সাফল্যে উন্নত হতে পারে না। নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে বিশ্বব্যাপী চলছে নানা কর্মকাণ্ড। নারীর ক্ষমতায়ন ও উন্নয়ন ছাড়া দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। আর তাই নারীশিক্ষার প্রতি বেশ গুরুত্ব দিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়িত হলো “প্রযুক্তির সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন প্রকল্প”। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার লক্ষ্য অর্জনে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।

এরই প্রেক্ষিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর কর্তৃক দেশের বৃহত্তর ২১টি জেলায় ১০,৫০০জন নারীকে বাছাই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সার নারী উদ্যোক্তা, আইটি সার্ভিস প্রোভাইডার ও কল সেন্টার এজেন্ট তৈরির জন্য ৩টি লেভেলে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদ ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৯ সালের জুন মাস পর্যন্ত। প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু হয় সংশ্লিষ্ট উপজেলাগুলোর শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব ও অন্যান্য সরকারি ল্যাবে। ধারাবাহিকতার তালিকা অনুযায়ী চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলায় এই প্রকল্পটি শুরু করা হয়।

আর দীর্ঘ ৯মাস ব্যাপী এই প্রকল্পের প্রশিক্ষণ শেষে গত ১৯/০৭/২০১৯ তারিখে প্রকল্পটির ‘আইটি সার্ভিস প্রোভাইডার’ ক্যাটাগরির প্রশিক্ষক এবং প্রশিক্ষণার্থীদের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে সমাপনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। উক্ত সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব তাহসিন চৌধুরী, প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর, শী পাওয়ার প্রজেক্ট । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মো এনামুল কবীর, সহকারী প্রোগ্রামার, চট্রগ্রাম জেলা প্রশাসক এবং জনাব আজম ইউসুফ ঠাকুর, এসিস্ট্যান্ট ট্রেইনার, চট্রগ্রাম জেলা প্রশাসক। এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন জনাব রিয়াজ মোর্শেদ(ট্রেইনার, আইটি সার্ভিস প্রোভাইডার) এবং জনাব তায়বুর রহমান তামিম(ট্রেইনার, আইটি সার্ভিস প্রোভাইডার)। পুরো অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন জনাব ডফিন দাশ গুপ্ত(মাস্টার ট্রেইনার, আইটি সার্ভিস প্রোভাইডার, চট্রগ্রাম)। সমাপনী অনুষ্ঠানের বর্ণাঢ্য আয়োজনে ছিল বিভিন্ন ইভেন্ট। ইভেন্ট চলাকালীন সময়ে নাস্তার আয়োজন রাখা হয়।

অনুষ্ঠান শুরূ হয় কোরআন তেলাওয়াত এবং গীতা পাঠের মাধ্যমে। এরপর চলতে থাকে সাংস্কৃতিক আয়োজন। পাশাপাশি চলতে থাকে প্রশিক্ষণার্থীদের নিয়ে মেধা যাচাই কুইজ প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতায় সর্বোচ্চ নাম্বারপ্রাপ্তদের ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। দুপুরের খাবারের পর শুরু হয় প্রশিক্ষনার্থীদের আয়োজনে ছোট্ট নাটিকা। আগত অতিথিরা সবাই বেশ উপভোগ করেন এই আয়োজন। তারপর সমাপনী অনুষ্ঠানের কেক কাটা হয় । কেক কাটা পর্ব শেষে করা হয় অতিথি এবং প্রশিক্ষকদের সাথে ব্যাচভিত্তিক শিক্ষার্থীদের ফটোসেশন।

Ad

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here